বরিশালে ছোট ভাইয়ের স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা মামলার পলাতক আসামি আলম শরীফকে ৭ বছর পর পুলিশ গ্রেফতার করেছে। সোমবার সকালে ঢাকা থেকে বরিশালে আসা যাত্রীবাহী লঞ্চ এমভি ফারহান থেকে তাকে গ্রেফতার করে নগরীর বিমান বন্দর থানা পুলিশ। 

আলম শরীফ নিজের নাম-পরিচয় ও ভোটার আইডি কার্ড পরিবর্তন করে দেশের বিভিন্ন স্থানে আত্মগোপনে ছিলেন। বিমান বন্দর থানা পুলিশ জানায়, ২০১৩ সালের ১৪ ডিসেম্বর নগরীর ২৮ নম্বর ওয়ার্ডের শেরেবাংলা সড়কের বাসিন্দা আলম শরীফ তার ছোট ভাই ছালাম শরীফ বাদশার স্ত্রী বিলকিস বেগমকে কুপিয়ে জখম করে। ৫১ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বিলকিসের মৃত্যু হয়। 

এ ঘটনায় বিলকিসের বাবা মফিজউদ্দিন বাদী হয়ে আলম শরীফকে একমাত্র আসামি করে বিমান বন্দর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। 

মামলায় অভিযোগ করা হয়, আলম শরীফ বিলকিস বেগমের ব্যাংকের চেক চুরি করে। ওই চেকে ১ লাখ টাকা লিখে ঘটনার দিন বিলকিস বেগমকে চেকে স্বাক্ষর করতে বলে। তিনি স্বাক্ষর করতে অস্বীকার করায় কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে আলম শরীফ ধারালো অস্ত্র দিয়ে বিলকিস বেগমকে কুপিয়ে আহত করে। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় সে। 

দীর্ঘ ৭ বছর ধরে পলাতক থাকাবস্থায় মোবাইল ফোনে আলম শরীফ হত্যা মামলা তুলে নিতে বাদীর পরিবারকে নানা ভয়ভীতি দেখায় বলে অভিযোগ করেন ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী বিলকিস বেগমের ছেলে ইমন শরীফ।

জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ওই হত্যা মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে দুপুরে আলম শরীফকে আদালতে সোপর্দ করা হলে বিচারক তাকে কারাগারে প্রেরনের নির্দেশ দেন বলে জানান নগরীর বিমান বন্দর থানার ওসি জাহিদ-বিন আলম। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here