এতিহ্যবাহী শ্মশান দিপালী উৎসব

বরিশালে আগামীকাল শুক্রবার অনুষ্ঠিত হচ্ছে দীপাবলি উৎসব। অন্যান্য বছর ব্যাপক সমারোহে দীপাবলি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হলেও করোনার কারণে এবার বরিশাল নগরীর কাউনিয়া মহাশ্মশানে দীপাবলি উৎসব হবে সংক্ষিপ্ত পরিসরে।

দীপাবলী উৎসবের জন্য মহাশ্মশানের মঠসহ সমাধীস্থলগুলো সাজানো হয়েছে নতুনরূপে।

ওই দিন প্রয়াতদের সমাধির কাছে গিয়ে প্রার্থনাসহ তাদের পছন্দের খাবার সাজিয়ে রাখবেন তাদের স্বজনরা। করোনার কারণে এবার তোরণ নির্মাণ, আলোকসজ্জা এবং মেলার আয়োজন করছে না কর্তৃপক্ষ। সুষ্ঠু-সুন্দরভাবে দীপাবলি উৎসব সম্পন্ন করার জন্য নানা বিধিনিষেধ আরোপ করেছে মহাশ্মশান রক্ষা কমিটি। এদিকে উৎসব নির্বিঘ্ন এবং শান্তিপূর্ণ করার জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলেছে পুলিশ।

শুক্রবার সকাল ১০টার পর থেকে লগ্ন অনুযায়ী শুরু হবে দীপাবলির আনুষ্ঠানিকতা। চলবে পরদিন শনিবার সকাল ৭টা পর্যন্ত।

তবে এবার করোনার প্রকোপ ঠেকাতে সংক্ষিপ্ত পরিসরে আয়োজন করা হচ্ছে শ্মশান দীপাবলির। দীপাবলিতে অংশগ্রহণের জন্য নগরীর কাউনিয়া মহাশ্মশানে থাকা হাজার হাজার সমাধি-মঠ পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করে ধোয়া-মোছার কাজ চলছে গত কয়েক দিন ধরে। কেউ আবার রং করছেন প্রিয়জনের সমাধিক্ষেত্র। প্রয়াতদের আত্মার শান্তি কামনায় নানা প্রস্তুতি নিয়েছেন তারা।

নগরীর কাউনিয়ায় প্রায় ৬ একর জমির উপর গড়ে ওঠা মহাশ্মশানে প্রায় ৬১ হাজার সমাধি রয়েছে। বরিশাল মহাশ্মশান রক্ষা কমিটির সাধারণ সম্পাদক তমাল মালাকার বলেন, করোনার প্রকোপ ঠেকাতে এবার সংক্ষিপ্ত পরিসরে আয়োজন করা হয়েছে শ্মশান দীপাবলির। নির্মাণ করা হয়নি তোরণ। করা হয়নি আলোকসজ্জা। মেলাও আয়োজন করা হয়নি। এবার মাস্ক ব্যতীত কাউকে প্রবেশ করতে দেয়া হবে না মহাশ্মশানে। জীবানুনাশক দুটি টানেল বসানো হয়েছে শ্মশানে প্রবেশ গেটে। সামাজিক দূরত্ব রাখার জন্য সার্বক্ষণিক করা হবে মাইকিং। নিরাপত্তার জন্য স্থাপন করা হয়েছে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা।

এদিকে সংক্ষিপ্ত পরিসরে হলেও দীপাবলি উৎসব নির্বিঘ্ন এবং শান্তিপূর্ণ করতে সব বাহিনীর সমন্বয়ে নানা পদক্ষেপ নেয়ার কথা বলেছেন বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (উত্তর) মো. খাইরুল আলম।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here